মো: নুরআমিন, খানসামা (দিনাজপুর) প্রতিনিধি: যখন ষষ্ঠী মধ্য দিয়ে আজ সারাদেশে শারদীয় দুর্গা পূজার মহা উৎসব তখন খানসামা উপজেলার চিত্র একটু ভিন্ন।

আজ সকাল ১১টায় মন্ডপের কালো পতাকা উত্তোলন করে মন্ডপের সামনে বসে শোক পালন করেন তারা।

সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব দুর্গা পূজা। আর সেই পূজা বর্জন করছেন, খানসামা উপজেলার ২নং ভেড়ভেড়ী ইউনিয়ন টংগুয়ার কুমারপাড়া সার্বজনীন পূজা মন্ডপের ভক্তবৃন্দ কালো পতাকা উত্তোলন করে শোক পালন করেছেন এলাকাবাসী।

খানসামায় উপো বালা হত্যা কান্ডের ৬২ দিন অতিবাহিত হলেও কেন সুরহা হয়নি, এই হত্যাকান্ডের। বিচার না পাওয়ায় ব্যতিক্রম প্রতিবাদ করছেন এলাকাবাসী।

এ সময় অনন্ত কুমার রায় ডেইলি ঢাকা মেইল কে বলেন, উপো বালা হত্যা কান্ডের বিচার না পাওয়ায় আমরা এই শারদীয় দুর্গাপূজা বর্জন করে কালো পতাকা উত্তোলন করে শোক পালন করছি। যতদিন এই হত্যাকান্ডের ন্যায় বিচার পাবো না ততদিন আমরা এই মন্ডপে কোন ধর্মী  উৎসব করব না। আমরা এই শোক শক্তি রুপে নিতে চাই।

ডেইলি ঢাকা মেইল কে নৃপেন্দ্র নাথ রায় বলেন, জগৎতের সকল অশুভ শক্তিকে পরাজিত করে শুভশক্তির বিজয় হবে। এজন্য দেবী মা তার ভক্তদের কাছে বিভিন্ন নামে পরিচিত। সম্প্রতি সময়ে উপো বালা হত্যাকান্ডের ঘটনার প্রেক্ষাপটে এবারের শারদীয় দূর্গা পূজা বর্জনের ডাক দিয়েছি।

মণ্ডপের প্রবেশদ্বারে টাঙানো হয়েছে কালো পতাকা ‘সাম্প্রদায়িক অপশক্তির বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধভাবে রুখে দাঁড়াও’ শীর্ষক সহিংসতাবিরোধী স্লোগান সংবলিত ব্যানার। এমন প্রতিবাদী কর্মসূচির সঙ্গে সংহতি ও একাত্মতা জানিয়েছেন, উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি ধীমান দাস।

তিনি আরও বলেন, আমি যতটুকু জেনেছি তারা তাদের মেয়েকে হারিয়ে ওরা আওয়ামী লীগে ও কাছে প্রশাসনের কাছে কোন বিচার না পেয়ে নির্বিকার নিরব প্রতিবাদ করছেন। ওরা ওদের পূজা বন্ধ করে কালো পতাকা উত্তোলন করে এটি আমরা অবগত হয়েছি এটাকে আমরা সর্বস্তরে একে সমর্থন করি। তারা তাদের মেয়ের হত্যাকাণ্ডের প্রতিবাদ করবে এটাই স্বাভাবিক।